মরালমেসো, মরালমাসিমা এবং প্রাতঃকৃত্য

না, পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ দেব না এই ডান্স ড্রামার। তাতে পারফরমেন্সটির প্রতি জাস্টিস করা হবে না। মোদ্দা কথা, বিভিন্ন মুদ্রায় বিভিন্ন ভাবে তুলে ধরা হচ্ছিল মেয়েদের স্বাধীনতার চেষ্টা, নিজের মতন করে ভালো থাকার, ভালোবাসার চেষ্টা, এবং স্পষ্টভাবে সেই চেষ্টাকে বার বার প্রতিহত করছিল দুজন মেয়ে, যাদের উরুতে একটু আগেই সেই লারেলাপ্পা টাইপের দেখতে গগলস পরা ছেলেটা এসে, মার্কার পেন দিয়ে এঁকে দিয়ে গেছিল পদ্মফুল। সুস্পষ্ট ইঙ্গিত। … More মরালমেসো, মরালমাসিমা এবং প্রাতঃকৃত্য

মন কি বাতঃ এক দেশদ্রোহীর জবানবন্দী (বাড়তি পর্ব)

দেশ কি মারে? সন্ত্রাসের কোনও ধর্ম হয় না, দেশ হয় না। আপনি তো খবর পড়েন, খবরের চ্যানেল দ্যাখেন। জানেন তো, সন্ত্রাসবাদের শিকার ওই দেশটিও? কত শিশু কিশোর শিক্ষক সাধারণ মানুষ সেখানে নিয়মিত মারা যাচ্ছে এই সন্ত্রাসের ফলে? … পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ কিন্তু সত্যিই ইন্ডিয়াকে অতটা ঘেন্না করে না। এই ঘেন্নাটা তৈরি করা হয় মৌলবী ধর্মগুরু এবং মিলিটারি লেভেলে। তাতে জড়ানো হয় আজমল কাসভের মত কিছু নিরক্ষর ছেলেপুলেকে। জিহাদী ট্রেনিং দিয়ে এ দেশে পাঠায় তারা। আনরেস্ট তৈরি করে। সেই আনরেস্টের বলি হয় এদেশের মানুষ, ও দেশের মানুষও। কিন্তু পাকিস্তানের আমজনতা, শিক্ষিত চাকুরিজীবি মধ্যবিতের দল, তারা ঠিক আপনার আমার মতই। আপনি ইন্ডিয়ান জানলে আপনাকে বুকে জড়িয়ে ধরবে, ঘরে দাওয়াতে ডাকবে। খাবারের দাম নিতে চাইবে না। এরাই কিন্তু পাকিস্তানে সংখ্যাগুরু। এরা ঝগড়া চায় না, চায় কালচারাল এক্সচেঞ্জ। এরা ধর্মের চোখরাঙানি চায় না, চায় মুক্ত হাওয়া।

একবার ভেবে দেখুন। … More মন কি বাতঃ এক দেশদ্রোহীর জবানবন্দী (বাড়তি পর্ব)

অন্ধকারে বসে কথা বলার কারণ

সামগ্রিকভাবে, টেলিভিশন এখন জনতার মধ্যে “দেশদ্রোহী” খোঁজার খেলায় মেতেছে। অ্যাঙ্কররা চেঁচিয়ে যায় এবং মতাদর্শরা জন্ম নেয়। এই সহিংস শব্দাবলীর মধ্যে আমি ডুবে যেতে থাকি। ভারসাম্য হারাই, মনে হয় কিছু কিছু জিনিস বোধ হয় খুব বেশিমাত্রায় ছড়িয়ে গেছে। ঠিক বা ভুলের প্রশ্ন নয়। আমরা যখন মনে করতে শুরু করি যে আমাদের কথাই শেষ কথা, তখনই আমাদের থেমে গিয়ে অন্যমতকে শোনা উচিত। বিরুদ্ধমত ও অসহমতকে জায়গা দেওয়া উচিত। আবার, আবার প্রশ্ন তোলা উচিত। … More অন্ধকারে বসে কথা বলার কারণ

ইনটলারেন্স নিয়ে কিছু কথা

পাকিস্তানে যাবার সুপরামর্শ আপনারা আজকাল শুনছেন, আমি এই গত দেড় বছর ধরে অনেকবার পেয়ে এসেছি। ২০১৪র নির্বাচনের সময় থেকেই ভারত কেমন একটা অদ্ভূত রকমের পোলারাইজড হয়ে গেছে, যে বা যারা নরেন্দ্র মোদীর সমর্থন করবে না, তারা দেশের শত্রু, তারা দেশের বিকাশ চায় না, তাদের অবিলম্বে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হোক। বিজেপি জেতার পরে উল্লসিত অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করেছেন, আমি কবে পাকিস্তান যাচ্ছি। সেই প্রশ্নকারীদের মধ্যে আমার কলেজের সহপাঠী, স্কুলের সময়কার বন্ধু কিংবা পরে হওয়া অল্পপরিচিত ব্যক্তিও আছেন, এই শ্রী যতীন ধাওয়ান তাঁদের মধ্যেই একজন। … More ইনটলারেন্স নিয়ে কিছু কথা